তিতাসের ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলার অনুমোদন

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানিতে ঘুষ লেনদেনের প্রমাণ পাওয়ায় তিতাসের সাবেক এমডিসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করার অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
আজ বুধবার কমিশনের এক বৈঠকে এ মামলার অনুমোদন দেয়া হয় বলে জানান দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য।
তিনি বলেন, শিগগিরই মামলা করবেন অনুসন্ধান কর্মকর্তা। অভিযোগটির অনুসন্ধান দলে ছিলেন উপ-পরিচালক মো. মনজুর আলম ও উপসহকারী পরিচালক মো. শাজাহান মিরাজ।
তিতাসের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মীর মশিউর রহমান, গাজীপুর অঞ্চলের সাবেক ব্যবস্থাপক (বর্তমানে ব্যবস্থাপক, পাইপলাইন ডিজাইন বিভাগ) প্রকৌশলী ছাব্বের আহমেদ চৌধুরী, ছাব্বেরের স্ত্রী রুমানা রিসাত জামান ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এসবি কনস্ট্রাকশনের মালিক মো. সাইফুল ইসলামকে এ মামলায় আসামি করা হবে বলে দুদক সূত্রে জানা যায়।
তিতাসের এমডি প্রকৌশলী মীর মশিউর রহমান, ঠিকাদার সাইফুল ইসলাম, প্রকৌশলী ছাব্বের আহমেদ চৌধুরী পরস্পর যোগসাজশে ৪০ কোটি ৩৬ হাজার ৫৮৪ টাকার সন্দেহজনক লেনদেন করেছেন বলে দুদকের অনুসন্ধানে জানা যায়।
প্রকৌশলী ছাব্বের আহমেদ চৌধুরীর স্ত্রী রুমানা রিসাত জামানের মালিকানাধীন ওয়াস্ট কেম ইন্টারন্যাশনালের ব্যাংক হিসাব পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ২০১৬ সালের ৩ জানুয়ারি থেকে ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত হিসাবটিতে ২৮ কোটি ৯৮ লাখ ৫৯ হাজার ৬৭১ টাকা নগদে ও স্থানান্তরের মাধ্যমে জমা হয়েছে। নগদ ও স্থানান্তরের মাধ্যমে তুলে নেওয়া হয়েছে ২৮ কোটি ৬৬ লাখ ৮৫ হাজার ৪৩৬ টাকা। হিসাববিবরণী পর্যালোচনায় আরও দেখা যায়, হিসাবগুলোয় জমা হওয়া টাকার অধিকাংশই জমা হয়েছে গাজীপুরের বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠান থেকে। এসব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ওয়াস্ট কেমের কোনো ব্যবসায়িক সম্পর্ক নেই।